মুম্বাইয়ে শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন !

যথাযোগ্য মর্যাদায় এবং ভাবগম্ভীর পরিবেশে মুম্বাইয়ে মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়েছে।শুক্রবার ঢাকায় এক সংবাদ বি’জ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশন প্রেসিডেন্ট হোটেল-এ অমর একুশে এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- মহারাষ্ট্র সরকারের স্টেট চিফ ইনফরমেশন কমিশনার শ্রী সুমিত মল্লিক।

বিশেষ অতিথি ছিলেন ভারতীয় নৌবাহিনীর সাবেক প্রধান অ্যাডমিরাল (অবসরপ্রাপ্ত) ভিষ্ণু ভগওয়াৎ।অনুষ্ঠানের শুরুতেই জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করণ এবং ভাষা শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি ?’

গানে ভাষা দিবসের আবেশ জাগরিত হয়ে উঠে। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়।স্থানীয় কবিতা প্রেমী ও প্রবাসী ইসরাক জামান ব’র্ষণ এবং মাস্টার প্রতাপ মাজহার সেঠি কবিতা আবৃত্তি করেন। আয়ারল্যান্ডের কনসাল জেনারেল গেরী কেলী ও ইতালির কনসাল জেনারেল মিজ্ স্টেফেনিয়া কোসতানজা নিজ নিজ ভাষার বৈশিষ্ট বর্ণনা করেন এবং কবিতা আবৃত্তি করেন।

আলোচনায় বক্তারা বলেন, প্রত্যেকেই নিজ নিজ মাতৃভাষার সংরক্ষণ এবং প্রচারের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব আ’রোপ করেন। মুম্বাইয়ে নি’যুক্ত বাংলাদেশের উপ-হাইকমিশনার মো. লুৎফর রহমান তার বক্তব্যে বাংলাদেশের মহান শহিদ দিবসের তাৎপর্য এবং স্বাধীনতা অর্জনে ভাষা আন্দোলনের গু’রুত্বের কথা তুলে ধরেন। এ সময় তিনি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে অমর একুশের স্বীকৃতির পটভূমি ব্যখ্যা করেন। আলোচনা পর্ব শেষে প্রামাণ্যচিত্র ‘আমার মাতৃভাষা’ প্রদর্শন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *